Home / বিনোদন / শিল্পার মতো ছিপছিপে চেহারা চান, দেখে নিন এই অভিনেত্রীর দেওয়া ১০টি টিপস!

শিল্পার মতো ছিপছিপে চেহারা চান, দেখে নিন এই অভিনেত্রীর দেওয়া ১০টি টিপস!

ফিটনেস নিয়ে শিল্পা শেট্টি কুন্দ্রা কতটা সচেতন তা সকলেই জানেন। তার সুপার ফিট চেহারা এবং সরু কোমর-চকচকে ত্বকের রহস্য আসলে লুকিয়ে নিয়মিত স্বাস্থ্যকর খাবার এবং শারীরিক কসরতের অভ্যাসের মধ্যে। তার সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন পোস্ট দেখে সেটা ভালোভাবেই বোঝা যায়। তিনি নিয়মিত নানা কঠিন কঠিন যোগাভ্যাস করেন।

সম্প্রতি নিজের ইনস্টাগ্রাম পোস্টে শিল্পা লেখেন, ‘‘স্বাস্থ্যকর খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। তার মানে এই নয়, নিজেকে গুটিয়ে বেধে রাখবেন জীবনের কোনও বিষয়কে আটকে রাখা যায় না তবে নিয়ন্ত্রণ করা যায়। তাই কতটা এবং কখন খাচ্ছেন সে সম্পর্কে আপনাদের জন্য ১০টি টিপস রইল।

খাবার খাওয়ার দশটি টিপস:
১. বাদাম বা বাড়িতে তৈরি গ্রানোলা নিয়ে বেড়াতে যান বেড়াতে যাওয়ার সময়ে শরীরের দিকে নজর দেওয়া খুব জরুরি। বেশিরভাগই ঘুরতে গিয়ে আমরা বাইরে থেকে চকলেট, চিপস কিনে খাই। এর বদলে আপনি যদি বেশ কিছু বাদাম জাতীয় এবং বীজ জাতীয় খাবার নিয়ে যান, যেমন আম‌ন্ড, কাজু, ওয়ালনাট, তিসির বীজ, বাড়িতে তৈরি ভ্যানিলা, তা হলে ঘোরা এবং স্বাস্থ্য উভয়ই বজায় থাকবে।

২. টিভি দেখতে দেখতে খাবেন না খেতে খেতে যদি টিভি দেখেন তা হলে খেয়াল থাকবে না আপনি কতটা খাচ্ছেন। ফলে অনেক সময় বেশি খেয়ে ফেলার প্রবণতা দেখা যায়।

৩. ছোট পাত্রে খাওয়ার অভ্যাস করুন দু’তিন ঘণ্টা অন্তর অল্প অল্প করে খাওয়ার অভ্যেস গড়ে তুলুন। এতে খাবারের শরীরে খাবারের ভারসাম্য বজায় থাকবে।

৪ শ্রদ্ধার সঙ্গে খাবার খান খাবারের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে যদি তা গ্রহণ করেন তাতে মানসিক শান্তি থাকবে। আর সেই সুস্থ ভাবনা শারীরিক স্বাস্থ্যকেও সমৃদ্ধ করবে।

৫ ভালো করে চিবিয়ে খাবার খান অনেকটা সময় নিয়ে চিবিয়ে চিবিয়ে খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। এর ফলে খাবারের জরুরি উপাদান আপনার শরীরে প্রবেশ করবে। ফলে গ্যাসের সমস্যা থেকেও মুক্তি পাবেন।

৬ খাবার কেনার আগে লেবেল দেখুন যে কোনও প্যাকেটজাত খাবার কেনার আগে তার লেবেলটা ভালো করে পড়ে দেখবেন। তার মধ্যে কত পরিমাণ সোডিয়াম, ক্যালোরি, কোলেস্টেরল স্যাচুরেটেড ফ্যাট, চিনি রয়েছে জেনে বুঝে তবেই সেটা কিনবেন।

৭. দিনে মিনিট শ্বাস-প্রশ্বাসের ব্যায়াম করুন দিনে ১০ মিনিট এ ধরনের ব্যায়াম করলে আপনাদের দুশ্চিন্তার মাত্রা খানিকটা কমবে। হার্টরেট স্বাভাবিক থাকবে এবং রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থেকে শরীরও সুস্থ থাকবে।

৮. খাওয়ার 15 মিনিট আগে বা পড়ে জল খান খাবার খেতে খেতে জল খাওয়া স্বাস্থ্য,ম্মত নয়। খাবার খাওয়ার শেষে বা দু’টি খাবার খাওয়ার মাঝের সময়ে জল পান করুন। এতে হজমশক্তিও বাড়বে। আর আপনার পরের মিলটি মাত্রাতিরিক্ত পরিমাণে খেয়ে ফেলার সম্ভাবনাও কমবে।

৯. খিদে পেলে তবেই খান খাবার দেখে ইচ্ছা হলেই তা খাবেন না। যখন খিদে পাবে তখনই শুধু খাওয়ার অভ্যেস গড়ে তুলুন। সিনেমা দেখার সময়ে খাবার বর্জন করুন।

১০. রান্নাঘরে স্বাস্থ্যকর খাবার রাখুন প্রক্রিয়াজাত ও প্যাকেটজাত খাবারের বদলে ফল, সব্জি, ডিম, দুগ্ধজাত দ্রব্য রান্নাঘরে রাখুন। এতে কাজ করতে করতে উপকারী খাদ্যগ্রহণের অভ্যাস তৈরি হবে।

সূত্র : এনডিটিভি